ধর্ষণের পর কিশোরীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা

ওপার বাংলা ডেস্ক
এক কিশোরীকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরেছে দুই যুবক।

ঘটনাটি নদীয়ার কৃষ্ণনগর বারুইহুদা রেল কোয়াটার্সের। অভিযুক্ত দুই যুবকের নাম অমলেশ ও কৃষ্ণ। ১৭ বছরের ওই কিশোরীর পরিবারের দাবি, মেয়ের সঙ্গে অমলেশের সম্পর্ক ছিল। তবে অমলেশ বিয়েতে রাজি ছিল না। এর ফলে মেয়েটির বাড়ির লোক হুগলির চন্দননগরে বিয়ে ঠিক করেছিলেন। দুই মাস পরই বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, তার আগেই খুন করা হলো ওই কিশোরীকে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে অমলেশ প্রতিবেশী যুবক কৃষ্ণ কুর্মিকে সঙ্গে নিয়ে মেয়েটিকে নিজের ঘরে নিয়ে গিয়েছিল। সেখানে কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয় বলেও পরিবারের অভিযোগ। এরপর প্রতিহিংসার জেরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে ওই কিশোরীকে পুড়িয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ।

অভিযোগের ভিত্তিতে মূল অভিযুক্ত অমলেশকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ওপার বাংলা ডেস্ক-
গভীররাত। চারপাশে পুজোর বাদ্যবাজনা। বাড়িতে বৃদ্ধা শাশুড়ি আর বৌমা। প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে উঠে হঠাত পুত্রবধুর ঘর থেকে বৃদ্ধার কানে ভেসে আসে ফিসফিস শব্দ। কৌতুহলী বৃদ্ধা কান পাতে বৌমার ঘরের চৌকাঠে । আর এই কৌতুহলই বুঝি কাল হলো তার। প্রেমিক আর বৌমা মিলে নৃশংস কায়দায় খুন করে বৃদ্ধাকে।

উত্তর ২৪ পরগনার শ্যামনগর ডানবার কটন মিল কুলি লাইন এলাকার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

সম্পর্কিত সংবাদ

পরকিয়া প্রেমিকের সঙ্গে পুত্রবধূর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক দেখে ফেলায় শ্বাসরোধ করে শাশুড়িকে খুনের অভিযোগ উঠেছে গৃহবধূ ও তার প্রেমিকের বিরুদ্ধে। নিহত মহিলার নাম- মালতী সাউ (৫২)।

ইতোমধ্যেই প্রেমিক সুভাষ হেলাকে আটক করেছে পুলিশ। গৃহবধূ সুতপা সাউয়ের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

অষ্টমীর রাত। উৎসবের আয়োজনে মগ্ন সবাই । পুজা মন্ডপে বেড়াতে যাবার কারনে ঘরে ছিলেননা সুতপার স্বামী। সেই সুযোগে প্রেমিক সুভাষ তাদের বাড়িতে আসে। সুভাষ এবং সুতপাকে তার শাশুড়ি ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন। এলাকাবাসীদের বক্তব্য এমনই।

তাদের অভিযোগ, স্বামীর অবর্তমানে সুতপার সঙ্গে প্রায়ই দেখা করতে আসত সুভাষ। তাদের মধ্যে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সুভাষের সঙ্গে ওই গৃহবধূকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলার কারণেই মালতীদেবীকে খুন করা হতে পারে বলে অনুমান স্থানীয়দের।

গতকাল রাতে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় মালতীর দেহ। ওই মহিলাকে খুন করা হয়েছে বলে মনে করছে নোয়াপাড়া থানার পুলিশ। মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।