মার্কিন দম্পতির প্রতারণার শিকার আমাজন

প্রযুক্তি ডেস্কঃ

মার্কিন দম্পতির প্রতারণার শিকার হল বিশ্ববিখ্যাত অনলাইন শপিং প্রতিষ্ঠান আমাজন৷ আমাজন থেকে ১২ লাখ ডলারের বেশি মূল্যের পণ্য চুরি করেছে সেই মার্কিন দম্পতি৷ তাদের স্বীকারোক্তির পরই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷ অভিনব উপায়ে চলেছিল সেই জালিয়াতি৷

একটি মার্কিন সংবাদপত্রের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইন্ডিয়ানা নিবাসী মার্কিন দম্পতির দম্পতির নাম জোসেফ ফিন্যান ও লিয়া জেনেত্তি ফিন্যান৷ তাদের বিরুদ্ধে আমাজনের সঙ্গে জালিয়াতি করার অভিযোগ উঠেছে৷ ফিন্যান দম্পতি অনলাইনে শতাধিক ভুয়ো অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের মাধ্যমে আমাজন থেকে অনলাইনে পণ্য কিনেছিলেন৷ তার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী৷

ওই মার্কিন দম্পতি জানায়, আমাজন থেকে কেনার জন্য যে পণ্যের অর্ডার করেছিলাম তার বেশিরভাগই ভাঙ্গা কিংবা নষ্ট ছিল৷ পণ্য হাতে পৌঁছতেই ভুয়ো অ্যাকাউন্ট থেকে তারা আমাজনের কাস্টমার সার্ভিস বিভাগে যোগাযোগ করেন৷ সেখানে অভিযোগ করে বলা হয়, অধিকাংশ সামগ্রী ভাঙ্গা বা কাজ করছে না।

নিয়মানুসারে, আমাজন কর্তৃপক্ষ ভেঙে যাওয়া পণ্যের পরিবর্তন করে দেয় বিনামূল্যে৷ এরপর ফিন্যান দম্পতি সেই পণ্য বিক্রি করেন অন্যজনের কাছে৷ যাকে বিক্রি করা হয়েছিল তিনি ফের নিউইয়র্কের এক বেনামী প্রতিষ্ঠানের কাছে সেই পণ্য বিক্রি করে দেন৷

বেশকিছুদিন ধরে এই ব্যবসা চালাচ্ছিল এই দম্পতি৷ এদিকে অর্ডার হওয়া পণ্যে বারবার ত্রুটি ধরা পড়ায় সন্দেহ দেখা দেয় কর্তৃপক্ষের৷ শুরু হয় তদন্ত৷ ডাক বিভাগের অনুসন্ধান বিভাগ, ইন্ডিয়ানা রাজ্য পুলিশ এবং অভ্যন্তরীণ রাজস্ব বিভাগের যৌথ তদন্তে এই দম্পতির জালিয়াতি ধরা পড়ে।

ফিন্যান দম্পতি অপরাধ স্বীকার করেছে। এর জন্য মার্কিন আইনে তাদের ৫ লাখ ডলার জরিমানা এবং সর্বোচ্চ ২০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। আগামী ৯ নভেম্বর এই রায় ঘোষণা করা হবে।