‘রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আফগান পার্লামেন্টের ভূমিকা বাংলাদেশের অবস্থানকে সুদৃঢ় করবে’

সময়ের কণ্ঠস্বর: জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আফগান পার্লামেন্টের ইতিবাচক ভূমিকা বাংলাদেশের অবস্থানকে সুদূঢ় করবে।

শুক্রবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, স্পিকার বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূঢ় পদক্ষেপ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তিনি শুধু রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ই দেননি, খাবার পানি, খাদ্য সরবরাহের ব্যবস্থাও করেছেন। তার সময়োচিত নেতৃত্বের কারণে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশের কক্সবাজার সীমান্তে জীবন বাঁচানোর স্বপ্ন দেখছে।

শ্রীলংকার রাজধানী কলম্বোতে সার্ক স্পিকারস এন্ড পার্লামেন্টারিয়ান্স এসোসিয়েশনের ৮ম সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে আফগানিস্তান পার্লামেন্টের ডেপুটি স্পিকার ও ডেলিগেশন প্রধান মোহামেদ নাজির আহমাদজাইর সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মোহামেদ নাজির আহমাদজাই বলেন, রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর মায়ানমারের নির্যাতন ঘৃন্য ও মানবতাবিরোধী। এ বিষয়ে তিনি আফগানিস্তান পার্লামেন্টের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

স্পিকার শিরীন শারমিন আরো বলেন, শেখ হাসিনা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে দৃঢ় কন্ঠে পাঁচটি প্রস্তাব উস্থাপন করেছেন, যা রোহিঙ্গাদের পুর্নবাসন ও শান্তি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আহমাদজাই স্পিকারকে জানান, রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রয়োজনে আফগানিস্তান পার্লামেন্টে নিন্দা প্রস্তাব আনা হবে। তিনি আফগানিস্তানের সংসদীয় একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে প্রেরণের আশ্বাস দেন।