🕓 সংবাদ শিরোনাম

বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে দেশকে চল্লিশ বছর পিছিয়ে দিয়েছে: আমির হোসেন আমু * ফরিদপুরে ১৪ দিন ধরে বন্ধ ক্লিনিক, টিকাদান কর্মসূচী চলছে স্কুলের বারান্দায়! * ফার্নেস অয়েলের দাম বাড়ল ১৫% * এবার গাড়িচাপায় প্রাণ গেল তিন মাদরাসাছাত্রের * ভারতে দুই বছর সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরল ৮ বাংলাদেশি নারী * পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী মা হতে চলেছে, দুলাভাই গ্রেপ্তার * ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মুখে লাশ নিয়ে বিক্ষোভ * গার্ডার দুর্ঘটনা : ক্রেনচালকসহ গ্রেপ্তার ৯ * ফরিদপুর জেলা কারাগারে নেই কোনো চিকিৎসক, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে বন্দীরা * পাথর খেকোদের দখলে ডাহুক নদী: নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ, ধ্বংস হচ্ছে ফসলি জমি *

  • আজ বৃহস্পতিবার, ৩ ভাদ্র, ১৪২৯ ৷ ১৮ আগস্ট, ২০২২ ৷

নবীগঞ্জে পরাজীত ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলার অভিযোগঃ অন্তঃস্বত্ত্বা মহিলা ও শিশুসহ আহত ১০


❏ বৃহস্পতিবার, জুন ১৬, ২০১৬ অপরাধ

মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি


indexcvbvbনবীগঞ্জে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার জের ধরে উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের পরাজীত চেয়ারম্যান যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামী আবুল খায়ের গোলাপের নেতৃত্বে হামলা, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার রাত প্রায় সাড়ে ১০টার দিকে গজনাইপুর ইউনিয়নের মামদপুর গ্রামের নিরহ মানুষের বাড়ি ঘরে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এ হামলায় অন্তঃস্বত্ত্বা মহিলা ও শিশুসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে অন্তঃস্বত্তা দুই মহিলাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সুত্রে জানাগেছে, এ বারের অনুষ্ঠিত্ব ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গজনাইপুরের ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে ৩ জন শক্তিশালী প্রার্থী ছিলেন। ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে নৌকা প্রতীক চেয়েছিলে আবুল খায়ের গোলাপ। কিন্তু তিনি যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামী হওয়ায় তাকে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়নি। কেন্দ্রে গিয়ে তিনি চমক দেখালেও শেষ পর্যন্ত তা ঠেকেনি। অবশেষে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়াই করে নির্বাচিত হন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল। পরাজীত হন বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল খায়ের গোলাপ ও সাবেক চেয়ারম্যান শাহ নেওয়াজ। কিন্তু এদিকে অভিযোগ উঠেছে, নির্বাচনে পরাজিত হয়েই তান্ডব শুরু করেছেন চেয়ারম্যান আবুল খায়ের গোলাপ। নির্বাচনের পর থেকেই তার নিজ এলাকায় ঘটে যাচ্ছে একের পর এক ঘটনা। নির্বাচনের পরের দিনই যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামীদের উপর হামলা চালায় চেয়ারম্যান ও তার লোকজন এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়। গত রবিবার রাতেও গোলাপের লোকজন কতৃক অন্য প্রার্থীর এক কর্মীকে আটক করে মারধরেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে গত বুধবার রাত প্রায় সাড়ে ১০টার দিকে চেয়ারম্যান আবুল খায়ের গোলাপের নিজ গ্রাম উপজেলার মামদপুর গ্রামে গোলাপের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের এক দল লোক দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। নির্বাচনী সময়ে গোলাপের পক্ষে কাজ না করে অন্য প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় আব্দাল, জামাল, সালাম, কাদির, আজিদ, মুহিদ, ফুল বিবি, রশিদ, রুসনসহ প্রায় ১০/১২ জনের বাড়ী ঘরে হামলা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে জানীয়েছেন স্থানীয়রা।

এ হামলায় পারুল আক্তার (২৮), নুরেছা বেগম (২০), কারিমা বেগম (৭), কুসম বিবি (৬০)সহ অনন্ত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে পারুল আক্তার (২৮), নুরেছা বেগম (২০)কে সিলেটে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্যদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকা করছেন স্থানীয়রা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা দায়েরের খবর পাওয়া যায়নি। তবে এক সূত্রে জানাগেছে, আহতরা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

উল্লেখ, নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে চমক দেখিয়েছিলেন যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল খায়ের গোলাপ। যে মুহূর্তে মানবতা বিরোধী অপরাধ মামলার আসামি হিসেবে চেয়ারম্যান আবুল খায়ের গোলাপকে নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে তোলপাড় চলছে ঠিক সেই মুহূর্তেই তাকে এ মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল। নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুলের নাম বাদ দিয়ে তৃণমূল থেকে তার নাম প্রস্তাব পাঠানো হয়। এ নিয়ে উপজেলার সর্বত্র আলোড়ন সৃষ্টি করে। অবশ্য মানবতা বিরোধী আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউশন তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় বৃহস্পতিবার তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়। এখানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুলকে মনোনয়ন দেয়া হয়। পাশাপাশি মানবতা বিরোধী অপরাধের প্রসিকিউশন আবুল খায়ের গোলাপকে নজরদারীর জন্য ম্যাসেজের মাধ্যমে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে জানিয়ে দিয়েছে। ইতিমধ্যে মানবতা বিরোধী আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের লোকজন গজনাইপুর ইউনিয়নে এসে তদন্ত করেছে।