🕓 সংবাদ শিরোনাম

‘পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা দেশবিরোধী, এদের খুঁজে বের করতে হবে’ * পদ্মা সেতুর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছে এশিয়ার ৫ দেশ * সাম্প্রতিক বন্যায় ৭ কোটি টাকার বেশি নগদ বরাদ্দ * সিলেটে আশ্রয়কেন্দ্রে এখনও ৫০ হাজার বন্যার্ত মানুষ * গত ২৪ ঘন্টায় পদ্মা সেতুতে টোল আদায় ২ কোটি ৯ লাখ * গর্ভপাতের অধিকার রক্ষার দাবিতে আমেরিকার বিভিন্ন প্রদেশে বিক্ষোভ * এবার পাবনায় একসঙ্গে ৩ সন্তানের জন্ম, নাম পদ্মা-সেতু-উদ্বোধন * নীলফামারীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু * সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে কোস্ট গার্ড মহাপরিচালকের ত্রাণ বিতরণ * চার দফা দাবিতে পাবিপ্রবির ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ *

  • আজ সোমবার, ১৩ আষাঢ়, ১৪২৯ ৷ ২৭ জুন, ২০২২ ৷

সে রাতে নিহত ২০ জনের মধ্যে ভারতীয় তরুণী তারুশিকে সবচেয়ে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করে জঙ্গিরা


❏ শুক্রবার, জুলাই ১৫, ২০১৬ Breaking News, আলোচিত, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –   রাজধানীর গুলশানের স্প্যানিশ রেস্তোঁরা হলি আটিজানে জঙ্গিদের হামলার ঘটনায় নিহত হন ভারতীয় তরুণী তারুশি জৈন। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার এই ছাত্রীকে হত্যার আগে নিষ্ঠুরভাবে নির্যাতন চালায় সন্ত্রাসীরা। উনিশ বছর বয়সী উচ্ছল এই তরুণীর লাশের ময়না তদন্তে শরীরে প্রায় ৪০ টির মত আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। হলি আর্টিসান বেকারিতে নিহত ২০ জনের মধ্যে তাকেই সবচেয়ে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করে জঙ্গিরা।

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক প্যানেলের প্রধান ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তারুশির মাথার একপাশে কোপানো হয়েছে। দু’হাতেও রয়েছে ধারালো অস্ত্রের আঘাত। বুকে ও পেটে পাওয়া গেছে ক্ষতচিহ্ন। আঘাতের সংখ্যা ও ধরন দেখে ধারণা করা হচ্ছে, মৃত্যুর আগে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে জখম করা হয়েছে তাকে।

tarusi

ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, ”  গুলশানের ঘটনায় নিহত ১০ নারীর ওপরই অপেক্ষাকৃত বেশি বর্বর হামলা চালায় জঙ্গিরা।এদের মধ্যে তারুশির শরীরেই  ছিলো সবচেয়ে বেশি আঘাত।  আলামত দেখে মনে হয়, কোনো কারণে নারীদের ওপর বেশি ক্ষুব্ধ ছিল তারা।”

তিনি আরো জানান, হলি আর্টিজানে নিহত নারীদের মরদেহের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তারা কেউ ধর্ষণের শিকার হননি। আরও নিশ্চিত হতে ভিসেরা পরীক্ষার জন্য নমুনা মহাখালীর রাসায়নিক পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

জৈন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, বার্কলে’র অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী তারুশি জৈন গ্রীষ্মের ছুটিতে ঢাকায় এসেছিলেন। তার বাড়ি ভারতের উত্তর প্রদেশের ফিরোজাবাদে। তারুশীর বাবা সঞ্জীব জৈন ২০ বছর ধরে ঢাকায় পোশাক ব্যবসা করছেন। স্ত্রী তুলিকা জৈনকে নিয়ে তিনি ঢাকায় বসবাস করেন। তারুশির শৈশবের দীর্ঘসময় কেটেছে ঢাকাতেই। ঢাকার আমেরিকান ইন্টারন্যাশানাল স্কুলে পড়াশোনা করেছেন। সামার ভেকেশনে ঢাকায় অবস্থানকালে ইস্টার্ন ব্যাংকে ইন্টার্নশিপ শুরু করেছিলেন। গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে গত ১ জুলাই রাতে দুইবন্ধু যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টার ইমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারাজ আইয়াজ হোসেন ও অবিন্তা কবিরের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। পুলিশের দেয়া তথ্যমতে তিন বন্ধুকেই নির্মমভাবে হত্যা করে জঙ্গিরা।