• আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ আষাঢ়, ১৪২৯ ৷ ৩০ জুন, ২০২২ ৷

ক্যারিয়ার জীবনের সবচেয়ে বড় আফসোসের কথা জানালেন দীপিকা


❏ শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০১৬ বিনোদন

বিনোদন ডেস্কঃ সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহণকারী ভারতীয় তারকাদের একজন হিসেবে, তিনি বলিউড চলচ্চিত্রে তার কর্মজীবন প্রতিষ্ঠিত করার পাশাপাশি দুইটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। শাহরুখ খানের হাত ধরে ২০০৭ সালে ফারাহ খানের পরিচালনায় ‘ওম শান্তি ওম’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন দীপিকা। এর সুবাদে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে সেরা নবাগতার পুরস্কারটি ঘরে তোলেন তিনি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। ২০১২ সালের বক্স অফিস হিট ককটেল পাড়ুকোনের কর্মজীবনের সন্ধিক্ষণ হিসেবে চিহ্নিত হয়, যা তাকে সমালোচকদের কর্তৃক প্রশংসা অর্জনের পাশাপাশি বিভিন্ন পুরস্কার সমারোহ অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জন্য মনোনয়ন এনে দেয়।  অথচ অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে এখনও পরিপূর্ণ মনে করেন না ৩০ বছর বয়সী এই তারকা।

সম্প্রতি ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় আফসোসের কথা জানালেন দীপিকা। ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনকে ‘বাজিরাও মাস্তানি’ তারকা বলেন, ‘যদি যশজির (যশ চোপড়া) সঙ্গে কাজ করতে পারতাম! আমাকে তিনি স্নেহ করতেন। আমিও তাকে শ্রদ্ধা করতাম।’

dipikaএদিকে দীপিকা সামনে অভিনয় করবেন সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’তে। এ ছাড়া তার অভিনীত হলিউডের ছবি ‘ট্রিপল এক্স: দ্য রিটার্ন অব জ্যান্ডার কেজ’ মুক্তি পাবে আগামী বছরের ২০ জানুয়ারি।

‘লাভ আজকাল’, ‘বাচনা এ হাসিনো’, ‘লাফাঙ্গে পারিন্দে’, ‘হাউজফুল’, ‘ককটেল’, ‘রেস’, ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘গোলিও কা রাসলীলা রাম-লীলা’, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’, ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ও ‘বাজিরাও মাস্তানি’ ছবিগুলো দীপিকাকে নিয়ে এসেছে প্রথম সারির অভিনেত্রীদের কাতারে।