খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গ্রামে গ্রামে আন্দোলন : গয়েশ্বর

goyesor n2
❏ বুধবার, ডিসেম্বর ২২, ২০২১ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, বগুড়া- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি ও বিদেশে যাবার অনুমতি না দিলে গ্রামে গ্রামে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সেই আন্দোলন হবে সরকার পতনের। এখনও সময় আছে জনগণের দাবি মেনে নিন।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে পাঠানোর দাবিতে বগুড়ায় আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এই সমাবেশকে ঘিরে সকাল ১০টার পর থেকেই বিএনপির বিভিন্ন সাংগঠনিক ইউনিট এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে নবাববাড়ী সড়কে জড়ো হন। সমাবেশ ঘিরে যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সকাল থেকেই শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক রেজাউল করিম বাদশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা।

সমাবেশের প্রধান অতিথির বক্তব্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘খালেদা জিয়ার জন্য আমরা দয়া দাবি করছি না। এটা তার অধিকার। প্রধানমন্ত্রীর কাছে জাতি জানতে চায়, তিনি চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে পাঠাবেন কি না। সরকার তাকে না পাঠালে আমরা তার পতনের জন্য আন্দোলন শুরু করব।’

তিনি অভিযোগ করেন, বেগম খালেদা জিয়াকে বিগত সময়ে জেলখানায় রেখে এই সরকার স্লো পয়জনিং করে অসুস্থ করে রেখেছে। আজকে ১৮ কোটি মানুষ রাস্তায় নেমেছে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে।

এ সময় সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক ওবায়দুর রহমান চন্দন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, সহসভাপতি নুসরত এলাহী রিজভী, বগুড়া-৬ সদর আসনের বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের এমপি মোশাররফ হোসেনসহ জেলা ও উপজেলা বিএনপি এবং অঙ্গসংগঠনের প্রায় ১০ হাজার নেতাকর্মী।