রাজশাহীতে ৮৮ কোটি টাকা ঋণ প্রতারণায় আমান গ্রুপের ৩ পরিচালক জেলে

RAJSHAHI 88 KOTI TAKA RIN PROTARONA MAMLAI 3 PRORICALOK JELE NEWS
❏ মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২ রাজশাহী

অসীম কুমার সরকার, রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে ৮৮ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে যমুনা ব্যাংকের করা মামলায় আমান গ্রুপের ৩ পরিচালককে জেলে পাঠিয়েছেন আদালত।

এরা হলেন, আমান গ্রপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল ইসলাম এবং দুই পরিচালক শফিকুল ইসলাম ও তৌফিকুল ইসলাম।

গত সোমবার রাজশাহীর অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রেজাউল করিম এ আদেশ দিয়েছেন।
আদালতের আদেশের পর তাদের কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। কারাগারে যাওয়া তিন আসামি একে অপরের ভাই। রাজশাহী মহানগরীর সাগরপাড়া এলাকায় তাদের বাড়ি। তারা যমুনা ব্যাংকের একটি প্রতারণার মামলার আসামী। রাজশাহী মহানগর পুলিশের আদালত পরিদর্শক আবুল হাশেম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আবুল হাশেম জানান, আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে ছয় সপ্তাহের জামিনে ছিলেন। সেই মেয়াদ শেষে উচ্চ আদালতের আদেশ মোতাবেক গত সোমবার তাঁরা নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করেন। তবে আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাদের কারাগারে পাঠান।

জানা গেছে, ২০১৯ সালে যমুনা ব্যাংকের রাজশাহী শাখার তৎকালীন ব্যবস্থাপক মনজুরুল আহসান শাহ এই তিনজনের বিরুদ্ধে নগরীর শাহমখদুম থানায় মামলাটি করেছিলেন। ঋণ নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে ৪২০ ও ৪০৬ ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য যমুনা ব্যাংকের রাজশাহী শাখার বর্তমান ব্যবস্থাপক ও সাবেক ব্যবস্থাপক এবং মামলার বাদীকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তারা ফোন না ধরায় এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়নি।