🕓 সংবাদ শিরোনাম

যে নেতার নিজের মা মরে মরে, তাকে দেখতে আসে না আর আপনার জন্য আসবে কোন দুঃখে: শামীম ওসমান * কেরানীগঞ্জে প্যাকেজিং কারখানায় আগুন, ৩ ঘন্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে * পুলিশের উদ্ধার করা মাদক ছিনিয়ে নিয়ে প্রকাশ্যে খেল মাদকসেবীরা! * চাঁদা না দেয়ায় দোকানে হামলা ভাংচুর, ব্যবসায়ীকে মারধর * ধরাছোঁয়ার বাইরে মূল আসামিরা, মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি * ভারতকে অনুরোধ করার দায়িত্ব কাউকে দেয়া হয়নি : ওবায়দুল কাদের * বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেলওয়ে জাদুঘর এখন ফরিদপুরে * কোটালীপাড়ায় একদিনে দু’জনের আত্মহত্যা * রাজবাড়ীতে মারামারি মামলায় সাংবাদিকসহ ২জন গ্রেফতার * নারায়ণগঞ্জে প্রাইভেটকারচাপায় পথচারীর মৃত্যু *

  • আজ শনিবার, ৫ ভাদ্র, ১৪২৯ ৷ ২০ আগস্ট, ২০২২ ৷

পরীক্ষার খাতা না দেখানোয় সহপাঠিদের হাতে প্রাণ গেলো স্কুলছাত্রের

Sirajgonj news
❏ বৃহস্পতিবার, জুন ২৩, ২০২২ রাজশাহী

রাজিব আহমেদ রাসেল, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র ও ক্লাসের সেরা ছাত্র ছিল সুমন (১৫)। টগবগে চঞ্চল কিশোর পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলায়ও পারদর্শী ছিল সে। কিন্তু হঠাৎ সহপাঠীদের হামলায় আহত হয়ে ১০ দিন জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকার পর বুধবার (২২ জুন) রাত ১০টায় না ফেরার দেশে পাড়ি জমায় সুমন।

সুমন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার বেলতৈল গ্রামের দরিদ্র সুলতান প্রামাণিকের ছেলে ও বেলতৈল উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র।

নিহত সুমনের চাচা মোঃ রজব আলী জানান, গত ১২ জুন রবিবার বিদ্যালয়ের অর্ধ বার্ষিকী পরিক্ষার সময় তার সহপাঠী ২/৩ জন ছাত্র তার খাতা দেখতে চাইলে সুমন খাতা দেখাতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে পরীক্ষা শেষে বাইসাইকেল যোগে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে তার সহপাঠী রাকিব, রতন ও নাছিরের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন বখাটে সুমনের পথরোধ করে।

পরে তারা সুমনের উপর হামলা চালায়, এসময় হামলাকারীরা লাঠি সোটার আঘাত ও কিলঘুষি মারতে থাকে। পরে অন্যান্য সহপাঠীরা ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন সুমনকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সেখানে সুমনের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিরাজগঞ্জ শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন। সিরাজগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়, সেখানে সুমনের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বগুড়া শহিদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন। গত ১৮ জুন সুমনকে বগুড়া শহিদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে ৬ দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় বুধবার (২২ জুন) সুমন মারা যায়। তার মৃত্যুর খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের আহাজারিতে এলাকার বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।

সুমনের সহপাঠী ও প্রতিবেশীরা জানায়, সে অনেক মেধাবী ছাত্র ছিল। দরিদ্র পিতার একমাত্র অবলম্বন ছিল, তার মৃত্যুর সাথে একটি পরিবারের‌ও মৃত্যু হলো। তারা এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহিদ মাহমুদ খান বলেন, স্কুলছাত্রের মৃত্যুর ঘটনা জানার পর শজিমেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কে ময়নাতদন্তের জন্য জানানো হয়েছে। স্কুলছাত্রের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আমরা নিয়মিত হত্যা মামলা হিসেবে গ্রহণ করবো।