🕓 সংবাদ শিরোনাম

মাইক্রোসফটের সঙ্গে ওয়ালটনের চুক্তি * গাজীপুরে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকীতে স্কুল ড্রেস বিতরণ * ‘আড্ডা প্রিয়’ স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে বলে অভিমানী স্ত্রীর আত্মহত্যা! * অভিনব কায়দায় প্রেমের ফাঁদে মোটরসাইকেল ছিনতাই, গ্রেপ্তার হলো তরুনী * বরগুনায় ছাত্রলীগ কর্মীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ: তদন্ত করবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ * ফরিদপুরে জুট মিলের রোলারে পিষ্ট হয়ে শ্রমিকের মৃত্যু * ফরিদপুরে স্ত্রীর করা মামলায় পুলিশ কর্মকর্তার কারাদণ্ড * মিত্র দেশগুলোকে অত্যাধুনিক অস্ত্র সরবরাহে প্রস্তুত রাশিয়া: পুতিন * যুক্তরাষ্ট্রে আলোকিত নারী কল্যান ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু * নিখোঁজের দুদিন পর কিশোরের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার *

  • আজ মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র, ১৪২৯ ৷ ১৬ আগস্ট, ২০২২ ৷

পদ্মা সেতু উদ্বোধনীর আনন্দ উৎসবে আ.লীগের সাধারণ সম্পাদককে পিটিয়ে আহত

Pabna news
❏ রবিবার, জুন ২৬, ২০২২ রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার ফরিদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আশরাফুল কবীর কে পিটিয়ে আহত করেছে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম কুদ্দুসসহ তার বাহিনী ।

আহত আলী আশরাফুল কবীর স্থানীয় গোপালনগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শনিবার (২৫ জুন) দিবাগত রাত সাড়ে আটটার দিকে ফরিদপুর বাজারে বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজ উদ্দিন খান মুক্তমঞ্চে পদ্মা সেতু উদ্বোধনীর আনন্দ উৎসব চলার সময় অনুষ্ঠান স্থলে এ ঘটনা ঘটে।

ফরিদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আশরাফুল কবীর বলেন, পদ্মা সেতুর অনুষ্ঠান করতে গিয়ে অনুষ্ঠানের মঞ্চের পিছনে আমার দলেরই ফরিদপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম কুদ্দুস কে বললাম, ভাই ২৩ তারিখের অনুষ্ঠানেও আসলেন না। আবার ২৫ তারিখের অনুষ্ঠানেও আসলেন না।

তখন তিনি বলেন, তোমাদের অনুষ্ঠানে আমরা যাব কেন। তোমরা রাজাকার। রাজাকারের অনুষ্ঠানে আমরা যাই না। সে আওয়ামী লীগের নেতা হয়ে এ কথা বলতে পারেন কি না এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তিনি এবং তার ক্যাডার বাহিনী চাপাতি দিয়ে আমার মাথায় কোপ দেয়। আমি এখন গোপালনগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আশরাফুল কবীর কে মারপিটের ঘটনা স্বীকার করে ফরিদপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম কুদ্দুস জানান, অনুষ্ঠানস্থলের পাশে একটি দোকানে চা খাচ্ছিলাম। একটা বিষয় নিয়ে তার সাথে আমার কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তিনি আমার কলার চেপে ধরেন। তখন আমার ছেলে পেলে তাকে কিল ঘুষি মারলে মাটিতে পড়ে গিয়ে তার মাথা কেটে যায় ।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ফরিদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, অনুষ্ঠানস্থলে পুলিশ ছিল। পুলিশ দ্রুত বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করে । এ বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।