🕓 সংবাদ শিরোনাম

‘আড্ডা প্রিয়’ স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে বলে অভিমানী স্ত্রীর আত্মহত্যা! * অভিনব কায়দায় প্রেমের ফাঁদে মোটরসাইকেল ছিনতাই, গ্রেপ্তার হলো তরুনী * বরগুনায় ছাত্রলীগ কর্মীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ: তদন্ত করবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ * ফরিদপুরে জুট মিলের রোলারে পিষ্ট হয়ে শ্রমিকের মৃত্যু * ফরিদপুরে স্ত্রীর করা মামলায় পুলিশ কর্মকর্তার কারাদণ্ড * মিত্র দেশগুলোকে অত্যাধুনিক অস্ত্র সরবরাহে প্রস্তুত রাশিয়া: পুতিন * যুক্তরাষ্ট্রে আলোকিত নারী কল্যান ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু * নিখোঁজের দুদিন পর কিশোরের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার * সিআইডি প্রধান হলেন মোহাম্মদ আলী মিয়া * চাঁদাবাজির অভিযোগে আটকের পর গণপিটুনির শিকার পুলিশ কনস্টেবল *

  • আজ মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র, ১৪২৯ ৷ ১৬ আগস্ট, ২০২২ ৷

রাষ্ট্রপতির ছেলের ড্রাইভারকে মারধর, ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা


❏ মঙ্গলবার, জুন ২৮, ২০২২ আলোচিত বাংলাদেশ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, জবি: তুচ্ছ ঘটনায় রাষ্ট্রপতির ছেলের গাড়ির ড্রাইভারকে আটকে রেখে মারধর করেছেন কৌশিক সরকার সাম্য নামে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক কর্মী। পরে ভুক্তভোগী ড্রাইভার নজরুল ইসলাম ওয়ারী থানায় এই ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত কৌশিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস. এম. আকতার হোসেনের কর্মী। তবে অভিযুক্ত ছাত্রলীগের কেউ নয় বলে জানান জবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার।

সোমবার (২৭ জুন) ওয়ারী থানায় বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন নজরুল ইসলাম নামে ভুক্তভোগী সেই ড্রাইভার। তিনি রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এর ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির ড্রাইভার বলে জানিয়েছে ওয়ারী থানা পুলিশ।

ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবীর হোসেন হাওলাদার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার ওয়ারীর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম হলের কাছে গাড়িতে ড্রাইভার থাকার সময় আসামি সাইড দিতে বলে। পরে তুচ্ছ ঘটনায় ড্রাইভারকে মারধর করা হয়। তারপর তাকে নজরুল ইসলাম হলে ধরে নিয়ে গিয়ে মারধর করা হয়। এছাড়া প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

এই অভিযোগ করে ড্রাইভার নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। একজনের নাম উল্লেখসহ আরও কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা করে আসামি করা হয়েছে। তবে এ মামলায় এখনো পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। মামলা নং ২৫, ২৭/৪/২২ বলে থানা থেকে জানা যায়।

এছাড়া ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানার ফাঁড়ির পুলিশের উপ-পরিদর্শক জহির হোসেন বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় ড্রাইভারকে মারধর করা হয়। বাদী খুব ভয় পেয়ে যান। এমনভাবে মারতে থাকে যেন আর বাঁচবেন না বলে আমাদের কাছে ভীতি প্রকাশ করেন। ড্রাইভার মহামান্য রাষ্ট্রপতির ছেলে রিয়াদ আহমেদ তুষারের গাড়ির ড্রাইভার বলে আমাদেরকে জানায়।

জবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস. এম. আকতার হোসেন বলেন, কৌশিক সরকার সাম্য নামের ওই ছেলে ছাত্রলীগের কোন কর্মী না। সে গত কয়েকটি কোন প্রোগ্রামে আসেনি। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন প্রোগ্রাম, ধানমন্ডি ৩২ এ ফুল দেয়ার প্রোগ্রামসহ কোন প্রোগ্রামে ছিল না। তবে কোন শিক্ষার্থী যদি আমার সাথে ছবি তুলতে আসে মানা করা যায় না। সে যদি আসামি হয় তাহলে ছাত্রলীগ এর দায়ভার নিবে না।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ঘটনার বিষয়ে ওয়ারী থানা থেকে শুনেছি। গাড়ির ড্রাইভার মহামান্য রাষ্ট্রপতি স্যারের ছেলের ড্রাইভার বলে থানা জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, এরআগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় ২০১৯ সালের ৭ নভেম্বর আসামি কৌশিক সরকার সাম্যকে সাময়িক বহিস্কার করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।