🕓 সংবাদ শিরোনাম

লালমনিরহাটে সাংবাদিকদের উপর হামলাকারী সেই সাহেদ আলী মন্ডল গ্রেপ্তার * কক্সবাজারে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ২ জন নিহত * পঞ্চগড়ে হিজাব নিয়ে কটুক্তির অভিযোগে শিক্ষক বরখাস্ত * গাজীপুরে দ্রুতযান এক্সপ্রেসের একাধিক বগি লাইনচ্যুত, উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের ট্রেন চলাচল বন্ধ * ঈশ্বরদীতে রেলস্টেশন থেকে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার * আন্দোলন করুক, কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়: প্রধানমন্ত্রী * পিরোজপুরে জোয়ারের পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত * পাবনায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড * বঙ্গোপসাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপ, পটুয়াখালী পৌর শহরসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত * বুয়েটে পাকিস্তানের প্রেতাত্মারা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে: জয় *

  • আজ সোমবার, ৩১ শ্রাবণ, ১৪২৯ ৷ ১৫ আগস্ট, ২০২২ ৷

পদ্মা সেতুর প্রভাব গাবতলী বাস টার্মিনালে

Dhaka news
❏ শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২ ঢাকা

রাজু আহমেদ,স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোসহ রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক পরিবর্তনে নতুন মেরুকরণের সৃষ্টি হয়েছে। সমগ্র বাংলাদেশে বইছে আনন্দের বন্যা। তবে এর সাময়িক নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে রাজধানীর গাবতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসহ ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ টি জেলা থেকে রাজধানীর সাথে যোগাযোগের অন্যতম প্রধান স্থলপথ হিসেবে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরীঘাট পার হয়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অতিক্রম করে গাবতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালকেই ব্যবহার করা হতো। যে কারণে দক্ষিণবঙ্গের ২১ জেলা থেকে রাজধানীর প্রবেশদ্বার হিসেবে পরিচিত ছিলো রাজবাড়ীর দৌলৎদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাট। ফলে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ও গাবতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের গুরুত্ব ছিলো অপরিসীম। পদ্মা সেতু উদ্বোধনে পাল্টে যেতে শুরু করেছে বহুল তাৎপর্যপূর্ণ এই বাস টার্মিনালের চিরচেনা রূপ।

এমনকি,আসন্ন ঈদ-উল-আযহাকে ঘিরেও যাত্রী পরিবহনে খুব একটা চাপ নেই গাবতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে। গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে দেশের দক্ষিণের জেলাগুলোতে ছেড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী পরিবহনগুলো বেশির ভাগ আসন যাত্রী শূন্য নিয়েই টার্মিনাল ত্যাগ করতে বাধ্য হচ্ছে।

গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে ফরিদপুরে চলাচলকারী জনপ্রিয় পরিবহন গোল্ডেন লাইনের কাউন্টারে দায়িত্বরত কাউন্টার মাষ্টার জানান,আসন্ন ঈদ-উল-আযহাকে কেন্দ্র করে গতকাল থেকেই অগ্রীম টিকিট বিক্রি শুরু হলে তেমন কোনো সাড়া পাচ্ছিনা। এমনকি নিয়মিত যাত্রী পরিবহনে অন্যান্য কোম্পানির বাসগুলোর মতো আমাদের আমাদের ছেড়ে যাওয়া ট্রিপেও আশানুরূপ যাত্রী মিলছেনা।

গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক সড়ক হয়ে পাটুরিয়া-দৌলৎদিয়া ঘাট ব্যবহার করে দক্ষিণের জেলাগুলোতে ভেঙ্গে ভেঙ্গে যাতায়াতকারী যাত্রীদের অন্যতম জনপ্রিয় ‘সেলফী’ পরিবহনের একজন চালক হৃদয় আহমেদ জানান,আজ গত কয়েকদিন হলো একাধিক ট্রিপ শেষে গাড়ি বন্ধ করে ঘরে ফিরতে হচ্ছে খালি পকেটে। আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে এই রুটে চলাচলকারী পরিবহনের মালিক-শ্রমিকগণ খুবই হতাশার মধ্যে দিনপাত করছেন।

গাবতলী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল থেকে চলাচলকারী যাত্রীবাহী পরিবহনের তত্ত্বাবধানকারী সংগঠন বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের তথ্যমতে, গাবতলী টার্মিনাল থেকে দেশের বিভিন্ন সড়ক হয়ে প্রায় এক হাজার ২০০ এর মত বাস চলাচল করে। এরমধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী বাসের সংখ্যা প্রায় ৬০০টি। তবে এসময়ে ব্যবসায় চরম ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকায় রয়েছেন বাস মালিকগণ।

বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু রায়হান বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আমরাও চাচ্ছি-গাবতলীর কিছু গাড়ি পদ্মা সেতু হয়ে চলাচল করুক। এজন্য বিআরটিএ বরাবর আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে লিখিত আবেদনও করেছি।

তিনি আরো বলেন, “আমাদের গাড়িগুলোর রুট পারমিট নেওয়া আছে পাটুরিয়া হয়ে। এজন্য আমরা লিখিতভাবে আবেদন করেছিলাম, যেন কোনোভাবে আমাদের গাড়িগুলো পদ্মা সেতু হয়ে যেতে দেয়। তা না হলে রাতে ঢাকা শহরের ভেতর দিয়ে চলাচলের অনুমতি দেয়। কিন্তু আশানুরূপ কোনো সাড়া পাইনি। পারমিশন দেয় নাই, আমরা কিভাবে গাড়ি চালাব?”

অপরদিকে বিআরটিএ বলছে, রুট পারমিট ছাড়া কোনো বাস পদ্মা সেতু হয়ে যেতে পারবে না। ঢাকার বৃহত্তম এ টার্মিনাল থেকে যাত্রী পরিবহনকারী বিভিন্ন কোম্পানির বাসের রুট পারমিট এখন পাটুরিয়া ঘাট হয়ে যাতায়াতের।

তবে রুট পারমিটের অনুমোদন চাইলে তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।সেজন্য কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে বলেও গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন এ বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী।

বিআরটিএ’র এই কর্মকর্তা আরো জানান, পদ্মা সেতু দিয়ে বাস চলাচলে সরকারি সংস্থা বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) ইতোমধ্যে নতুন ১৩টি রুট নির্ধারণ করে বাসের ভাড়াও নির্ধারণ করে দিয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের এসব রুটের ভাড়া নির্ধারণ করে ৭ জুন সংস্থাটির দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে পদ্মা সেতু হয়ে বাস চলাচলে শুরুর স্টেশন ধরা হয়েছে রাজধানীর সায়দাবাদ বাস টার্মিনালকে। সুতরাং নিয়মানুযায়ী পদ্মা সেতু হয়ে যাতায়াতকারী বাসগুলো সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকেই ছেড়ে যাবে। গাবতলীর বাসগুলো এদিক দিয়ে চালাতে পারবে না। কারণ শহরের ভেতর দিয়ে তাদের চলাচলের অনুমতি নেই। আর বাস নির্ধারিত টার্মিনালের বাইরে থেকেও যেতে পারবে না, কারণ আমরা পারমিট দিচ্ছি সায়েদাবাদ টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যাওয়ার।”

তবে তাদের আবেদন ও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত এভাবেই চলতে হবে। ফলে সেই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া তাদের আর কিছু করার নেই বলে যোগ করেন বিআরটিএ’র এই কর্মকর্তা।