কক্সবাজারে অস্ত্র মামলায় রোহিঙ্গা যুবকের ১৭ বছরের কারাদণ্ড


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ২, ২০২২ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, কক্সবাজার: কক্সবাজারে অস্ত্র মামলায় মো. শহিদ উল্লাহ নামের এক রোহিঙ্গা যুবকের ১৭ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। রামু উপজেলার ঈদগড়ের গহীন পাহাড়ে অস্ত্র ও অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জামসহ আটক হন তিনি। দীর্ঘ ১৬ বছর বিচারক কার্যক্রম চলার পর এই মামলার রায় দেন আদালত।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুরে কক্সবাজার যুগ্ন দায়রাজজ প্রথম আদালতের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক মাহমুদুল হাসান এ রায় ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট জিয়া উদ্দিন আহমদ।

তিনি জানান, ২০০৬ সালের ১৭ আগস্ট গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঈদগড়ের গহীন অরণ্যে অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে যায় রামু থানা পুলিশ। অভিজানে একটি দেশীয় তৈরি অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম সহ মো. শহিদ উল্লাহকে আটক করে পুলিশ।

পরে রামু থানার এএসআই ওমর ফারুক বাদী হয়ে ওই দিন মামলা করেন। তদন্ত কর্মকর্তা এস আই দিদারুল ফেরদৌস মো.শহীদ উল্লাহকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেন। মামলাটি বিচারের জন্য স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ নম্বর আদালতে পাঠানো হলে বিচারক আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন।

মামলায় মো. শহিদ উল্লাহকে বিচারক অস্ত্র আইনের ১৯ (এ) ধারায় ১০ বছর এবং ১৯ (এফ) ধারায় ৭ বছরসহ তাকে ১৭ বছরের কারাদণ্ড দেন।