🕓 সংবাদ শিরোনাম

জনগণকে রক্ষায় রাজপথ দখলে রাখবো : হাছান মাহমুদ * শ্রীলঙ্কান শিশুদের পাশে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল * ১৩ বছর আত্মগোপনে থাকার পর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার * নিজের অশ্লীল ছবি দিয়ে ফেসবুক মেসেঞ্জারে ছাত্রীর ছবি চান অধ্যক্ষ! * ‘চুক্তি বাতিল করেছি’, জানালেন সাকিব * বিয়ের নাটক সাজিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা * পান্থপথের আবাসিক হোটেল থেকে নারী চিকিৎসকের গলাকাটা মরদেহ; গ্রেপ্তার ঘাতক * বিছনাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রে রাতের আধারে পাথর চুরি, দিনে ট্রাকে বিক্রি * সিয়েরা লিওনে মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ, নিহত ২৭ * বিবাহ বহির্ভূতভাবে ১০ মাস সংসার! স্ত্রীর স্বীকৃতিতে নারীর অনশন *

  • আজ শুক্রবার, ২৮ শ্রাবণ, ১৪২৯ ৷ ১২ আগস্ট, ২০২২ ৷

রংপুরে অচল নোটের কথা বলে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে উধাও

Rangpur news
❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ২, ২০২২ রংপুর

সাইফুল ইসলাম মুকুল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (রংপুর): রংপুরের পীরগাছা সোনালী ব্যাংকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে এক প্রতারক।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। প্রতারণার শিকার মুহাম্মদ আবুল হাশেম সিদ্দিকী পাওটানাহাট ফাজিল মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। তিনি এ বিষয়ে পীরগাছা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, টাকার বিশেষ প্রয়োজন হওয়ায় মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে সময় পীরগাছা সোনালী ব্যাংকে যান আবুল হাশেম। এসময় চেক লিখতে গেলে ব্যাংকের স্টাফ পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি তাকে সহায়তা করতে এগিয়ে আসে। যার আনুমানিক বয়স ৪৫ বছর। লোকটি সাদা হাফ শাট পরিহিত এবং মুখে মাস্ক পরা ছিল। ওই ব্যক্তি ব্যাংকে আসা গ্রাহকদের কাগজ-কলম দিয়ে সহায়তা করতে থাকেন। এসময় ব্যাংকের ক্যাশিয়ার বলে টাকা নাই। পরে আসতে বললে আবুল হাশেম সিদ্দিকী আবারও দুপুর একটার দিকে ব্যাংকে যান এবং সংশ্লিষ্ট কাউন্টার থেকে ৫ লাখ টাকার ১০টি ৫০০ টাকার বান্ডিল উত্তোলন করেন।

ওই ব্যক্তি টাকা গুনতে সহায়তার কথা বলে একটি ৫০০ টাকার বান্ডিল গুনতে থাকে। টাকা গুনতে থাকা ওই ব্যক্তি জানান, এই বান্ডিলে দুটি অচল নোট রয়েছে, আমি বদলিয়ে নিয়ে আসি। এ কথা বলে তিনি ৫০০ টাকার একটি ৫০ হাজার টাকার বান্ডিল নিয়ে পালিয়ে যায়। পেছন ফিরে তাকে আর পাননি গ্রাহক আবুল হাশেম।

পরে বিষয়টি জানালে ম্যানেজার আসাদুজ্জামান ওই ব্যক্তি ব্যাংকের কেউ নয় বলে জানান।

আবুল হাশেমের দাবি, প্রতারক ওই ব্যক্তি ব্যাংকের অনেকের নাম ধরে ডাকাডাকি করেছে। সে তাদের পূর্বপরিচিত।’ তিনি বলেন, আমি থানায় অভিযোগ দিয়েছি। এর প্রতিকার চাই।

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে পীরগাছা সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার আসাদুজ্জামান বলেন, ওই সময় আমি ছিলাম না। ব্যাংকে কোন সিসি ক্যামেরা নাই। ওই গ্রাহকের টাকা হারিয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করছেন।

পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুমুর রহমান বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ব্যাংকে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। সার্বিক বিষয় তদন্ত করে ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।