🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ২৫ শ্রাবণ, ১৪২৯ ৷ ৯ আগস্ট, ২০২২ ৷

এবার সেই এপিএস ফুয়াদের বিরুদ্ধে সাড়ে ৫ কোটি টাকার মানি লন্ডারিংয়ের মামলা

Faridpur news
❏ বৃহস্পতিবার, আগস্ট ৪, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: আলোচিত দুই হাজার কোটি টাকার পাচারের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সাবেক মন্ত্রী ও ফরিদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য খন্দকার মোশারফ হোসেনের এপিএস এ এইচ এম ফুয়াদের নামে সাড়ে ৫ কোটি টাকার মানিলন্ডারিং এর অভিযোগে মামলা হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বুধবার (৩ আগস্ট) দিনগত রাতে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিচিত্রা রানী বিশ্বাস বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। এছাড়া সিআইডি’র দায়ের করা এ মামলার তদন্তও সিআইডি করবে।

এ এইচ এম ফুয়াদ (৫২) ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার বিলনালিয়া গ্রামের বাসিন্দা। ফুয়াদের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি ৪৪ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫৮৬ কোটি টাকা মানি লন্ডারিনের অভিযোগে ২০১২ সালের মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন সংশোধনী ২০১৫ এর ৪(২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

অভিযোগে বলা হয়, এ এইচ এম ফুয়াদ ২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশারফ হোসেনের ছাত্রছায়ায় থেকে ফরিদপুরের সাজ্জাদ হোসেন বরকত এবং ইমতিয়াজ হাসান রুবেলের সহায়তায় হেলমেট বাহিনী গঠন করার অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া, এই বাহিনী দিয়ে এলজিইডি, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, গণপূর্ত বিভাগ, বিএডিসি, সড়ক বিভাগ সহ বিভিন্ন সরকারি অফিসের টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ করে ভূসম্পত্তিসহ প্রচুর সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। এছাড়া বিভিন্ন চাকরিতে নিয়োগে মন্ত্রীর সুপারিশ করিয়ে দেওয়ার কথা বলে অবৈধ ভাবে বিশাল সম্পত্তির মালিক হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৫ জুলাই ঢাকার কাফরুল থানায় সিআইডি ইমতিয়াজ হাসান রুবেল ও সাজ্জাদ হোসেন বরকতের নামে দুই হাজার কোটি টাকা মানি লন্ডনের অভিযোগে মামলা করেন ওই মামলার আসামি ফোয়াদ। ফুয়াদ বর্তমানে ওই মামলায় কারাগারে আছেন।