এইমাত্র
  • তারা যখনই বসবে আমরা রাজি আছি : আইনমন্ত্রী
  • নেত্রকোনায় গরু চুরিকে কেন্দ্র করে কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা
  • একাত্তরের রিপোর্টার নাদিয়া শারমিন গুলিবিদ্ধ
  • পিরোজপুরে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ
  • জয়পুরহাটে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া
  • ছাত্রলীগ আক্রমণ করেনি, গণমাধ্যমে ভুল শিরোনাম হয়েছে: কাদের
  • মহাখালীতে অবরোধ, ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ
  • কোটা আন্দোলনে গিয়ে নাশকতার মামলায় কারাগারে দুই শিক্ষার্থী
  • পরিস্থিতি বুঝে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে: প্রতিমন্ত্রী পলক
  • বাড্ডায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া
  • আজ বৃহস্পতিবার, ৩ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১৮ জুলাই, ২০২৪
    তথ্য-প্রযুক্তি

    অস্থির বিটকয়েনের বাজার, দাম কমলো ক্রিপ্টোকারেন্সির

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ৭ জুলাই ২০২৪, ০৯:০৫ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ৭ জুলাই ২০২৪, ০৯:০৫ পিএম

    অস্থির বিটকয়েনের বাজার, দাম কমলো ক্রিপ্টোকারেন্সির

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ৭ জুলাই ২০২৪, ০৯:০৫ পিএম

    প্রায় এক দশক আগে বন্ধ হয়ে যাওয়া জাপানের বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ মাউন্ট গক্সের গ্রাহকদের আটকেপড়া বিটকয়েন ফেরত দেয়া শুরু হতেই কিছুটা টালমাটাল হয়ে পড়ে বিশ্বের ক্রিপ্টোকারেন্সির জগৎ। গত এক সপ্তাহের মধ্যে দুইবার পতন হয় বিটকয়েনসহ অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সির দাম।

    প্রথমে সোমবার (১ জুলাই) বিটকয়েনের দাম ৬২ হাজার ৮৩০ ডলার থেকে বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) নেমে আসে ৫৬ হাজার ৯৭৩ ডলারে। পরবর্তীতে দাম কিছুটা বাড়লেও শুক্রবার (৫ জুলাই) একদিনের ব্যবধানে ফের পতন হয় বিটকয়েনের দামের। এদিন প্রতিটি বিটকয়েনের দাম ৫৭ হাজার ১৫৯ ডলার থেকে নেমে আসে ৫৩ হাজার ৯২৮ ডলারে। এর মাধ্যমে গত ফেব্রুয়ারির পর থেকে প্রথমবারের মতো বিটকয়েনের দাম নেমে আসে ৫৫ হাজার ডলারের নিচে।

    ক্রিপ্টোর বাজারের এই টালমাটালের ধাক্কা শুধু বিটকয়েনেই লাগেনি, প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিপ্টোকারেন্সি ইথার কয়েনের দামও শুক্রবার নেমে আসে ৩ হাজার ১০৪ ডলার থেকে ২ হাজার ৮৫০ ডলারে। ক্রিপ্টোর বাজার মনিটরিং করা ওয়েবসাইট কয়েনগেকোর দেয়া তথ্য অনুযায়ী সব মিলিয়ে শুক্রবার ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে বিশ্বের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার থেকে উধাও হয়ে যায় ১৭০ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ মূল্যমান।

    হ্যাকিংয়ের কারণে এক দশক আগে বন্ধ হওয়া জাপানি বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ মাউন্ট গক্স যখন গ্রাহকদের তাদের আটকেপড়া বিটকয়েন ফেরত দেয়ার ঘোষণা দেয়, তখন থেকেই মূলত অস্থিরতা শুরু হয় ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে।

    হ্যাকিংয়ের কারণে বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ মাউন্ট গক্স থেকে বেহাত হয়েছিল প্রায় ৯ লাখ ৫০ হাজার বিটকয়েন। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ৫৮ বিলিয়ন ডলার। এরপর ২০১৪ সালে দেউলিয়া হয়ে মাউন্ট গক্স বন্ধ হয়ে গেলেও, পরবর্তীতে বেহাত হওয়া এই বিটকয়েনের মধ্যে প্রায় ১ লাখ ৪০ হাজার বিটকয়েন পুনরূদ্ধার হয়। যার বর্তমান বাজার মূল্য ৯ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি। মাউন্ট গক্সের বর্তমান ট্রাস্টি এই বিটকয়েনগুলো যথাযথ প্রাপকের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানায় গত সোমবার। এরপর থেকেই পড়তে শুরু করে বিটকয়েনের দাম।

    শুক্রবার থেকে গ্রাহকদের পাওনা বিটকয়েন বিভিন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জে সরবরাহ করা হয়েছে বলে ঘোষণা দেয় মাউন্ট গক্সের ট্রাস্টি। এরপর আরেক দফা পতন হয় বিটকয়েনের দামের।

    মাউন্ট গক্সের সিদ্ধান্তে কেন টালমাটাল ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার

    শুক্রবার দেউলিয়া হওয়া জাপানি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ মাউন্ট গক্সের ট্রাস্টি নোবাউকি কোবায়াশি এক বিবৃতিতে বলেন, তারা বিভিন্ন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে মাউন্ট গক্সের পাওনাদারদের কাছে তাদের আটকে থাকা বিটকয়েন ফিরিয়ে দিতে শুরু করেছেন। তবে ঠিক কী পরিমাণ বিটকয়েন এই প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জে জমা করা হয়েছে তা তিনি উল্লেখ করেননি বলে জানায় মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি।

    তবে নোবাউকি কোবায়শি জানান, বেশ কিছু শর্তপূরণ সাপেক্ষেই কেবল গ্রাহকদের এই বিটকয়েন ফিরিয়ে দেয়া হবে। তিনি বলেন, যে সব ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে এই বিটকয়েন ফিরিয়ে দেয়া হবে তাদের সঙ্গে আলোচনা সম্পন্ন হওয়ার পর মাউন্ট গক্স এক্সচেঞ্জে রেজিস্ট্রি করা অ্যাকাউন্টগুলোর মেয়াদের সত্যতা যাচাইয়ের পরই নিজেদের পাওনা বিটকয়েন ফেরত পাবেন গ্রাহকরা।

    এদিকে মাউন্ট গক্সের উদ্ধার করা প্রায় দেড় লাখ বিটকয়েনের বর্তমান বাজারমূল্য ৯ বিলিয়ন ডলার। গ্রাহকরা যদি এই বিটকয়েন হাতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই তা বিক্রি করে নগদ অর্থে রূপান্তরিত করেন, তবে কমে যেতে পারে বিটকয়েনের দাম- এই গুজবের জেরে মাউন্ট গক্সের গ্রাহকদের তাদের পাওনা ফেরত পাওয়ার খবরে অস্থির হয়ে পড়ে বিটকয়েনের বাজার। যার ধাক্কা লাগে অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সিতেও। মাউন্ট গক্স যদি তার গ্রাহকদের মধ্যে তাদের পাওনা ৯ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ বিটকয়েন বিতরণ করে, তাহলে বিটকয়েনের দাম কমে যেতে পারে- এই আশঙ্কা থেকে অনেক বিটকয়েনের মালিকই শুক্রবার একযোগে তাদের হাতে থাকা বিটকয়েন বিক্রি করতে শুরু করেন। ক্রিপ্টোকারেন্সির তথ্য প্রদানকারী ওয়েবসাইট কয়েনগ্লাসের তথ্য অনুযায়ী এ সময় ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ২ লাখ ২৯ হাজার ৭৫৫ জন গ্রাহক তাদের হাতে থাকা ৬৩৯ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ বিটকয়েন বিক্রি করে দেন।

    তবে শুক্রবারের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারের অস্থিরতার পেছনে মাউন্ট গক্সের পাশাপাশি জার্মান সরকারেরও কিছুটা ভূমিকা রয়েছে। কারণ বৃহস্পতিবার জার্মান সরকার তাদের হাতে থাকা ৩ হাজারেরও বেশি বিটকয়েন বিক্রি করে দেয়। সে সময় যার মূল্যমান ছিলো ১৭৫ মিলিয়ন ডলার। মূলত চলচ্চিত্রে পাইরেসি বিরোধী অভিযান থেকে সম্প্রতি ৫০ হাজার বিটকয়েন জব্দ করে জার্মান সরকার। এই ৩ হাজার বিটকয়েন ছিলো তারই অংশ। বিটকয়েন গবেষণা বিষয়ক ওয়েবসাইট আরখাম ইনটেলিজেন্সের তথ্যমতে, জার্মান সরকারের হাতে এখনও মজুদ রয়েছে ৪০ হাজার বিটকয়েন; যার মূল্যমান ২ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি।

    এমএইচ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…