এইমাত্র
  • ভাইয়ের গায়ে পানি মারায় সৎ মায়ের হাতে প্রাণ গেল শিশুর
  • ‘মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা মাঠে নামলে কোটাবিরোধীরা টিকতে পারবে না’
  • বৈষম্য দূর করার জন্যেই কোটার প্রয়োজন: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
  • এ সপ্তাহে রাজধানীতে বাড়তে পারে যানজট: ডিএমপি
  • কুমিল্লায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত করলো দুর্বৃত্তরা
  • ‘মূল সড়কে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালানো যাবে না’
  • বাসা থেকে দেড় কোটি টাকা চুরি, ৪ দিন পর জানা গেল মেয়েই চোর
  • ট্রাম্পের ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামের নিষেধাজ্ঞা সরছে
  • নিজ সন্তানকে নদীতে ফেলে হত্যা: ১৩ বছর পর বাবা গ্রেফতার
  • ১০ নির্দেশনা দিল ‘বৈষম্য বিরোধী আন্দোলন’
  • আজ শনিবার, ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জুলাই, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন সাংবাদিক ইউনূস আলী

    সময়ের কণ্ঠস্বর রিপোর্ট প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৫৭ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর রিপোর্ট প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৫৭ পিএম

    চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন সাংবাদিক ইউনূস আলী

    সময়ের কণ্ঠস্বর রিপোর্ট প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৫৭ পিএম

    জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময়ের কণ্ঠস্বরের লালমনিরহাট প্রতিনিধি সাংবাদিক ইউনূস আলীর (৪৫) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙা ইউনিয়নের ভবানিপুর গ্রামে জানাজা শেষে তার মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

    জানাজায় হাতীবান্ধা উপজেলা চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মামুন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজির হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান সোহাগ, গড্ডিমারী ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ. আবু বক্কর সিদ্দিক (শ্যামল), টংভাঙা ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম হোসেন, হাতীবান্ধা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি ইলিয়াস বসুনিয়া পবন ও সময়ের কণ্ঠস্বরের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ফয়সাল শামীমসহ এলাকার লোকজন অংশ নেন।

    এছাড়া জানাজা নামাজে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশ নেন। সেসময় স্মৃতিচারণে অনেকেই মরহুম ইউনূস আলীর পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

    সাংবাদিক ইউনূস আলী হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম বেজগ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে। তিনি সময়ের কণ্ঠস্বর ছাড়াও স্বদেশ প্রতিদিন নামের একটি পত্রিকার লালমনিরহাট প্রতিনিধি ছিলেন। এছাড়া ইউনূস আলী লালমনিরহাট জেলা রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতিও ছিলেন।

    মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার প্রথম সন্তান মিঠুন চলতি বছরে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন এবং দ্বিতীয় সন্তান অষ্টম শ্রেণিতে লেখাপড়া করছে।

    এর আগে শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে সাংবাদিক ইউনূস আলী নিহত হন। লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়কে উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের বিদ্যুৎ স্টেশন এলাকায় মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

    পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লালমনিরহাট জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের সংবাদ কাভার করে মোটরসাইকেল যোগে হাতীবান্ধায় নিজ বাড়ীতে ফিরছিলেন সাংবাদিক ইউনূস আলী। আদিতমারি আলুর কোল্ড স্টোরেজ থেকে আসা আলু বোঝাই একটি ট্রাক তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে ট্রাকের পিছনের ডান পাশের চাকার নিচে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

    তার অকাল মৃত্যুতে সাংবাদিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যুর খবরে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সহকর্মীরা। এ ঘটনার বিচার ও নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতের দাবিতে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে মহাসড়ক অবরোধ করে সাংবাদিকরা। ফলে লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা।

    পরে লালমনিরহাট ডিসি মোহাম্মদ উল্ল্যাহ ও পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তারা নিহত সাংবাদিকের পরিবারের খোঁজ-খবর নেন এবং আর্থিকসহ সব ধরণের সাহায্য প্রদানের আশ্বাস দেন, সেই সাথে ঘাতক ট্রাক চালককে আটকের আশ্বাস প্রদান করলে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার হয়।

    এদিকে সাংবাদিক ইউনূস আলীর আকস্মিক মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে সময়ের কণ্ঠস্বর পরিবার। এক শোক বার্তায় সময়ের কণ্ঠস্বরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক পলাশ মল্লিক মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। একই সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা যাতে এ শোক কাটিয়ে উঠতে পারে সেজন্য প্রার্থনা করেন।

    তিনি বলেন, সাংবাদিক ইউনূস আলী ছিলেন একজন পেশাদার সাংবাদিক। দক্ষ ও যোগ্য সংগঠক এবং সংবাদকর্মী ইউনূস আলীর মৃত্যুতে আমরা একজন নিবেদিত সাংবাদিক ও সৎ মানুষকে হারালাম।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…