এইমাত্র
  • রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আরসার ৪ সদস্য আটক, অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার
  • ঢাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ৩
  • পিটিআই প্রধানের পদ থেকে সরানো হলো গোহরকে
  • আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়ার সুযোগ নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • রাশিয়ার ওপর আরও ৫০০ নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের
  • কাদের-চুন্নুকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে, বাদ দেয়া হয়নি: রওশন
  • অবৈধ মজুতদাররা শেখ হাসিনাকে উৎখাত করতে চায়: খাদ্যমন্ত্রী
  • ৩ মার্চ কলকাতা মাতাবেন নগর বাউল জেমস
  • স্কুলে মোবাইল নিষিদ্ধ করলো ব্রিটিশ সরকার
  • ওআইসি সম্মেলন যোগ দিতে তুরস্কে গেলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী
  • আজ শনিবার, ১১ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
    লাইফস্টাইল

    আজ হাগ ডে, প্রিয় মানুষকে জড়িয়ে ধরার দিন

    লাইফস্টাইল ডেস্ক প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:৩১ পিএম
    লাইফস্টাইল ডেস্ক প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:৩১ পিএম

    আজ হাগ ডে, প্রিয় মানুষকে জড়িয়ে ধরার দিন

    লাইফস্টাইল ডেস্ক প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:৩১ পিএম
    প্রতীকী ছবি

    ফ্রেব্রুয়ারি মাস এলেই যেন বাড়তি হাওয়া লাগে প্রেমের পালে। এ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের শেষ দিন অর্থাৎ বুধবার বিশ্ব মাতবে প্রেমে। ভালোবাসা দিবস ছাড়াও এই মাসে প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য রয়েছে আরও কিছু দিবস। আর ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তো উদযাপিত হচ্ছে ভ্যালেন্টাইন উইক বা ভালোবাসার সপ্তাহ।

    ভালোবাসার সপ্তাহের প্রতিটি দিনেই প্রেমিক যুগলের জন্য রয়েছে কোনো না কোনো দিবস। তারই ধারাবাহিকতায় আজ অর্থাৎ ১২ ফেব্রুয়ারি পালিত হচ্ছে “হাগ ডে”অর্থাৎ আলিঙ্গন দিবস।

    পরস্পরের মধ্যে ভালোবাসার আদান-প্রদানের অন্যতম মাধ্যম আলিঙ্গন। তবে, আলিঙ্গন যে শুধু ভালোবাসার মানুষকেই করতে হবে তেমনটা নয়; পরিবারের সদস্য, বন্ধুবান্ধব সবার সঙ্গেই আলিঙ্গন করা উচিত। কারণ, আলিঙ্গেনের কিছু স্বাস্থ্যগত উপকারও রয়েছে।

    বিভিন্ন মনস্তাত্ত্বিক গবেষণায় দেখা গেছে, স্নেহপূর্ণ আলিঙ্গনসহ অন্যান্য সহানুভূতিশীল অযৌন শারীরিক স্পর্শ আমাদের মানসিক উত্তেজনা, উদ্বেগ, ভীতি, অবসন্নতা ইত্যাদি কমাতে সাহায্য করে।

    যখন কারও মন খারাপ থাকে বা কেউ কোনো মানসিক পীড়ার মধ্যে থাকে, তখন তার একটু বেশি সহানুভূতি ও ভালোবাসার প্রয়োজন হয়।

    সহানুভূতি প্রকাশের ক্ষেত্রে আমরা অনেকেই অন্যকে আলিঙ্গন করে থাকি। এটি একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। তবে অনেক সময় খুব সাধারণ একটি আলিঙ্গন বহু দিনের পুরনো কষ্ট এবং হতাশা দূর করে দেয়।

    মনস্তত্ত্ববিদদের মতে, আলিঙ্গনের এমন প্রভাব রয়েছে যা একজন ব্যক্তির মানসিক অবস্থায় পরিবর্তন নিয়ে আসতে পারে। হতাশা এবং কষ্ট ভুলিয়ে মনকে শান্ত করে দিতে পারে।

    আলিঙ্গন একজন মানসিকভাবে বিচলিত মানুষের নার্ভাস সিস্টেমকে ধীরে ধীরে শান্ত হতে সহায়তা করে। আলিঙ্গন এক ধরনের সাইকোথেরাপির মত কাজ করে যা আমাদের পূর্ণতা এবং সন্তুষ্টির অনুভূতি দেয়। আলিঙ্গন একজন মানুষকে যেকোনো ধরনের মানসিক ও শারীরিক পীড়ার ক্ষেত্রে যত্নশীলতার অনুভূতি দেয়। ছোট থেকে বড় সব বয়সী মানুষের মনের ওপর এই প্রতিক্রিয়া দেখতে পাওয়া যায়।

    প্রিয় মানুষকে আলিঙ্গন করার সময় নিম্নের উক্তিগুলি জনপ্রিয়:

    ১) তোমার শুদ্ধ, সুন্দর, উষ্ণ ও ভালোবাসাপূর্ণ আলিঙ্গন আমায় জীবন দিয়েছে। কামনা করি আমাদের এই পুরো বছর ভালোবাসায় ভরে থাকুক।

    ২) অনেক ভালবাসা ও যত্ন দিয়ে তোমায় জানাই হ্যাগ ডে-এর শুভেচ্ছা। সারাজীবন এভাবেই আমার পাশে থেকো, আমার সঙ্গে থেকো।

    ৩) এসে গিয়েছে ভ্যালেন্টাইন্স ডে। তার আগে আজকের দিনটি বিশেষ। যে দিনে কখনও ভাষার দরকার নেই, শুধু আলিঙ্গনের উষ্ণতাই ভালোবাসার সংজ্ঞা বলে দেয়।

    ৪) তোমাকে আলিঙ্গন করলে নিজেকে খুব নিরাপদ মনে হয়। মন থেকে সমস্ত ভয়ও দূর হয়ে যায়।

    ৫) আজ, তোমার হাসির কারণ হতে চাই। জেনে রেখ, তোমার কথাই ভাবছি।

    ৬) ভালোবাসার আলিঙ্গন মোটেই রূপ দেখে করা যায় না, মন থেকে আসে পুরোটা।

    ৭) কখনও কখনও একটা উষ্ণ আলিঙ্গন হাজার শব্দ না বলেই প্রকাশ করতে পারে যা ভাষায় বোঝানো যায় না।

    ৮) ক্লান্তিমাখা দিনের শেষে তোমার একটা আলিঙ্গন আমার কাছে মিঠে বাতাসের মতো।

    ৯) সারাদিন যতই খারাপ কাটুক না কেন, সময় যতই খারাপ হয়ে যাক না কেন, তোমার একটু জড়িয়ে ধরলেই আমার সমস্ত দুঃখ-কষ্ট একেবারেই দূর হয়ে যায়।

    ১০) আমি সব সময় তোমার হাত ধরতে চাই, তোমার সঙ্গে থাকতে চাই, দিনরাত তোমায় নিয়ে থাকতে চাই।

    ১১) মনের মধ্যে শুধু একটাই বাসনা আছে, সেই শেষ কবে তোমায় জড়িয়ে ধরেছি তা আজও মনে আছে। আজ জানাই তোমায় ভালোবাসা।

    ১২) তুমি আমার কাছেই থাকো, আমি তোমার বন্ধু, তুমি আমার নদী, তোমার ভালবাসা আমার প্রয়োজন জীবন, তাই আমরা আমাদের হাত বাড়িয়েছি একে অপরের দিকে।

    ভালোবাসার সপ্তাহ জুড়ে প্রিয়জনের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশতো চলবেই। তবে আলিঙ্গনের বিষয়টি যেহেতু কিছুটা সংবেদনশীল সেই ক্ষেত্রে অবশ্যই ভালোবাসার সেই মানুষের অনুমতি ছাড়া কিছু করা যাবে না। মনে রাখতে হবে ভালোবাসার মানুষের সম্যান এবং স্বাচ্ছন্দ্যকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…