এইমাত্র
  • পানিতে তলিয়ে গেছে ভোলার নিচু এলাকা
  • এখন একটাই কাজ, তারেক জিয়ার সাজা বাস্তবায়ন: প্রধানমন্ত্রী
  • চোখ’ ফুটেছে ঘূর্ণিঝড় রেমালের, ব্যাপক তাণ্ডবের আশঙ্কা
  • বেঁচে যাওয়া বাছুরটিই বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ষাঁড়
  • সাভারে ডেইলি স্টারের সাংবাদিকের ‍উপর হামলা
  • স্বাস্থ্য খাতে বাংলাদেশকে সহযোগিতার আশ্বাস ডব্লিউএইচওর
  • প্লাবনের তোড়ে বাঁধ ভেঙে রাঙ্গাবালীর ২০ গ্রাম প্লাবিত
  • এবার বেনজীরের কোম্পানি-ফ্ল্যাট ক্রোকের নির্দেশ
  • পেনশন প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন
  • বিয়ে করলেন শরিফুল রাজ ও বুবলী
  • আজ রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ২৬ মে, ২০২৪
    খেলা

    দুর্দান্ত ক্যাচ ধরে কত টাকা পুরস্কার পেলেন মুস্তাফিজ

    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৪ পিএম
    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৪ পিএম

    দুর্দান্ত ক্যাচ ধরে কত টাকা পুরস্কার পেলেন মুস্তাফিজ

    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৪ পিএম

    আগের ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ১৯ বলে ৫২ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলেছিলেন সূর্যকুমার যাদব। চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষেও তেমন কিছু করতে পারতেন তিনি। কিন্তু মাথিশা পাথিরানার ওভারে মুস্তাফিজকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয় টি-টোয়েন্টির নম্বর ওয়ান ব্যাটারকে।

    চেন্নাইয়ের বিপক্ষে ক্রিজে এসে পাথিরানার ওভারে প্রথম বলটি ডট দেন সূর্যকুমার। দ্বিতীয় বলে খেলেন আপার-কাট। থার্ডম্যান অঞ্চলে সীমানার কাছে দাঁড়িয়ে সেটি লুফে নেন ফিজ। কিন্তু নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সীমানাদড়ির বাইরের দিকে হেলে পড়ায় বল উপরের দিকে ভাসিয়ে দেন তিনি। সীমানার বাইরে চলে যাওয়া মুস্তাফিজ দ্রুত মাঠে ঢুকে আবার সেই ক্যাচ ধরেন। বিদায় নেন সূর্য।

    দুর্দান্ত ওই ক্যাচের জন্য এক লাখ রুপি পুরস্কার পেয়েছেন মুস্তাফিজ। টাকার হিসাবে যা এক লাখ ৩১ হাজারেরও বেশি।

    ওই ম্যাচে মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ৫৫ রান দিয়ে নেন টিম ডেভিডের উইকেট। চেন্নাই জিতে ২০ রানে। তাদের ৪ উইকেটে ২০৬ রানের জবাবে ৬ উইকেটে ১৮৬ রান করতে সমর্থ হয় মুম্বাই। মুম্বাইয়ের হয়ে শতক করেন রোহিত শর্মা।

    নিজেদের মাঠে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় মুম্বাই। প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে ওপেনার রাহানেকে হারায় চেন্নাই। এরপর গাইকোয়াডকে নিয়ে ৫২ রানের জুটি করেন রাচিন রবীন্দ্র। রাচিন ২১ রানে ফিরে গেলেও ব্যাট হাতে ঝড় তুলতে থাকেন চেন্নাই অধিনায়ক।

    চারে নামা দুবেকে নিয়ে ৯০ রানের জুটি গড়েন তিনি। তবে ম্যাচের ১৬তম ওভারে পান্ডিয়ার বলে ৬৯ রান করে আউট হন গাইকোয়াড। অধিনায়ককে হারিয়েও থেমে থাকেনি চেন্নাই। ড্যারেল মিচেল ও ধোনির ঝোড়ো ইনিংসে বড় সংগ্রহ পায় তারা। দুবে ৩৮ বলে ৬৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। আর চেন্নাইয়ের সাবেক অধিনায়ক ধোনি ৪ বল খেলে তিন ছক্কার বিনিময়ে ২০ রানে অপরাজিত থাকেন। তাতে ২০৬ রানের পুঁজি পায় চেন্নাই।

    বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা দুর্দান্তভাবে করে মুম্বাই। রোহিত ও কিষানের ওপেনিং জুটি থেকে আসে ৭০ রান। তবে পাথিরানা এক ওভারেই দুই উইকেট তুলে নিয়ে চাপে ফেলে দেন মুম্বাইকে। একপ্রান্তে রোহিত খেলতে থাকলেও তাকে অন্যরা তেমনভাবে সঙ্গ দিতে পারেনি। রোহিত শর্মা শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ৬৩ বলে ১০৫ রানে। চেন্নাইয়ের হয়ে ২৮ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন পাথিরানা। এ জয়ের পর ৬ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে চেন্নাই। সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের আটে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

    এমএইচ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…